ফেসবুক অথোরাইজড অ্যাড একাউন্ট কী?

ফেসবুক ২০২০ এর জুন মাসে Httpool কে বাংলাদেশের জন্য অনুমোদিত সেলস পার্টনার হিসেবে নিযুক্ত করে। Httpool বাংলাদেশের স্থানীয় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ও এজেন্সিগুলোকে বিনা মূল্যে উন্নত মানের ফেসবুক মিডিয়া পরামর্শ দেওয়ার জন্য সুপ্রশিক্ষিত। তারা স্থানীয় ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও এজেন্সিগুলোকে নতুন ও প্রয়োজনীয় কৌশল শেখাতে ফেসবুক ব্লু প্রিন্টসহ বিভিন্ন প্রোগ্রাম ও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে থাকে। এ ছাড়া Httpool এর মাধ্যমে স্থানীয় ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও এজেন্সিগুলো বিজ্ঞাপনের জন্য স্থানীয়ভাবে বাংলাদেশি টাকায় ফেসবুককে অর্থ পরিশোধ করতে পারে।

ফেসবুক অথোরাইজড অ্যাড একাউন্ট এর বৈশিষ্ট্য কী?

এই অ্যাড একাউন্ট গুলোতে ফেসবুকের নিজস্ব পেমেন্ট মেথড এড করা থাকে। তাই বিজ্ঞাপন দাতা ফেসবুক অ্যাডের কোন পলিসি ভায়োলেট না করলে এ ধরনের অ্যাড একাউন্ট ডিজাবল হওয়া থেকে শতভাগ ঝুকিমুক্ত। এছাড়া যে পেইজের নামে অ্যাড একাউন্ট নেওয়া হয় সেই পেইজ টিও অনাকাংখিত রেস্ট্রিকশন থেকে ৯৯% ঝুকিমুক্ত থাকে।

সার্ভিস চার্জ

ডলারের ইন্টারব্যাংক এক্সচেঞ্জ রেট + সরকার নির্ধারিত ১৫% ভ্যাট + ৫% সার্ভিস চার্জ

শর্তাবলী

১। প্রতি মাসে মিনিমাম ৭০০ ডলারের অ্যাড স্পেন্ডিং বাজেট থাকতে হবে।

২। প্রথমবার অ্যাড একাউন্ট নেওয়ার সময় নূন্যতম ৫০০ ডলার দিয়ে ব্যালেন্স রিচার্জ করতে হবে। পরবর্তিতে নূন্যতম ১০০ ডলার দিয়ে ব্যালেন্স রিচার্জ করা যাবে।

৩। ৫০০ ডলার ব্যালেন্স রিচার্জ এর পেমেন্ট ৮ দিন ৮ কিস্তিতে দেওয়ার সুযোগ রয়েছে যদি ৫০০ ডলার খরচ করতে ৮ দিনের বেশি লাগে।

৪। অ্যাড একাউন্ট তৈরি হতে সর্বোচ্চ ৫ কর্মদিবস লাগতে পারে।

৫। প্রথমে ৫০০ টাকা পরিশোধ করে অ্যাড একাউন্টের জন্য আবেদন করতে হবে। পরবর্তিতে অ্যাড একাউন্ট এর এক্সেস নেওয়ার পর পূর্বের পরিশোধকৃত ৫০০ টাকা বাদ দিয়ে বাকি যে বিল থাকে তা দৈনিক কিস্তিতে অথবা একেবারে পরিশোধ করতে হবে।

৫। শুক্রবার এবং শনিবার Httpool এর অফিস বন্ধ থাকে তাই এই দুইদিন অ্যাড একাউন্ট সম্পর্কিত কোন কারিগরি সহায়তা প্রদান করা হয় না।

৬। ফেসবুকের টার্মস এন্ড কন্ডিশন মেনেই এই অ্যাড একাউন্ট পরিচালনা করতে হবে।